মেনু নির্বাচন করুন
আনসার ও ভিডিপি বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ গ্রামীণ গণভিত্তিক সংগঠন। এই সংগঠনের অধেক পুরুষ অধেক নারী।সমাজের স্বল্প শিক্ষিত নারী-পুরুষ সমঅধিকারের ভিত্তিতে এখানে কাজ করে থাকে।আ্ন-শৃংখলা রক্ষা, আথ-সামাজিক উন্নয়ন, সচেতনতা বৃদ্ধি, দৃষ্টিভঙ্গির পরিবতন্ ত্যাদির জন্য এ সংগঠন কাজ করে থাকে। ব্রাহ্মনবাড়িয়া জেলায় আনসার ও ভিডিপির সদস্য-সদস্যার সংখ্যা প্রায় ষাট হাজার।   জেলা কমান্ড্যান্ট, আনসার ও ভিডিপি এর কার্যালয় ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহর বাইপাস সড়কের পশ্চিম পার্শে  পৈরতলা রেল ক্রসিং এর কাছে অবস্থিত। ৩ একর জমির উপর দুইতলা ভবনে অফিসটি অবস্থিত।

সাধারণ তথ্য

সাংগঠনিক কাঠামো

কর্মকর্তাবৃন্দ

ছবিনামপদবিফোনমোবাইলইমেইল
MD.MAHBUBUR RAHMANজেলা কমান্ড্যান্ট ও অধিনায়ক (অতিরিক্ত দায়িত্ব), 17 আনসার ব্যাটালিয়ন 0851/6224101730038080bbaria.ansarvdp@gmail.com.
নূরুল আফছার চৌধুরীসার্কেল অ্যাডজুট্যান্ট01730-038262nafsar_eco@yahoo.com

কর্মচারীবৃন্দ

ছবিনামপদবি
মোঃ নজির ইসলামউচ্চমান সহকারী কাম হিসাব রক্ষক
মোঃ এহসানুল হকঅফিস সহকারী কাম-কম্পিউটার মুদ্রাক্ষরিক
মোঃ ইমরানঅফিস সহায়ক
মোঃ লোকমান খাননিরাপত্তা প্রহরী

প্রকল্পসমূহ

অত্র কার্যালয়ের অধীনে ৭০০ (সাতশত) অঙ্গীভূত আনসার রয়েছে যারা বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ

সরকারী ও বেসরকারী প্রতিষ্ঠান/স্থাপনার নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করছে। যেমন আশুগঞ্জ    পাওয়ার ষ্টেশন, আশগঞ্জ সারকারখানা, জিটিসিএল, আরপিজিসিএল, বাংলাদেশ গ্যাস ফিল্ড কোঃ লিঃ এর স্থাপনা সমূহ, বাখরাবাদ গ্যাস ফিল্ডের স্থাপনা সমূহ, বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড, পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি, ২৩০/১৩২ কেভি টাওয়ার আশুগঞ্জ , এলজিইডি, পাসপোর্ট অফিস, সার গোডাউন,

জিআরপি থানা আখাউড়া, সামাজিক প্রতিবন্ধি কেন্দ্র, সোনালী ব্যাংক, অগ্রণী ব্যাংক ও উত্তরা ব্যাংকের শাখা সমুহ ইত্যাদি।

 

 

(II) জাতীয় সংসদ নির্বাচন, ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন, পৌরসভা নির্বাচন এবং দূর্গাপূজায় অঙ্গীভূত আনসারদ্বারা ভোট কেন্দ্র ও পূজামন্ডপে নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করা।

(III) শহর ও গ্রামের প্রত্যন্ত অঞ্চলে আনসার ও ভিডিপি সদস্যদের মাধ্যমে বিভিন্ন নিরাপত্তা মুলক ও আর্থ-সামাজিক কাজ করা। যেমন রাত্রীকালিন পাহারা, পরিবার পরিকল্পনা, বাল্য বিবাহ, নারী ও শিশু পাচার ও নির্যাতন রোধ, মাদক নিয়ন্ত্রন,ইভটিজিং প্রতিরোধ, এন আই ডি প্রোগ্রাম, বৃক্ষ রোপন, দূর্যোগ মোকাবেলাসহ বিভিন্ন জনহিতকর কাজ।

(IV) আনসার ও ভিডিপি সদস্য সদস্যাদের বিভিন্ন মৌলিক, কারিগরি  এবং পেশা ভিত্তিক প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দেশে এবং বিদেশে কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি করা।

যোগাযোগ

ক) জেলা কমান্ড্যান্ট, জেলা কমান্ড্যান্ট এর কার্যালয়, আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনী ব্রাহ্মণবাড়িয়া।

       খ)         অফিস ফোন নাম্বার            :       ০৮৫১/৬২২৪১

       গ)         ফ্যাক্স নং                      :        ০৮৫১/৬১৬৭০

       ঘ)         ই-মেইল                       :        bbaria.ansarvdp@gmail.com.

       ঙ)         বাস ষ্টেশন থেকে যোগাযোগঃ রিকসা/অটো রিকসাযোগে দুরত্ব ৫০০ মিটার ।

       চ)         রেল ষ্টেশন থেকে যোগযোগঃ রিকসা/অটো রিকসাযোগে দুরত্ব ২ কিলোমিটার।

কী সেবা কীভাবে পাবেন

ক্রমিক

নং

                  সেবার নাম

দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা / কর্মচারী

 সেবা প্রদানের পদ্ধতি

(সংক্ষেপে)

সেবা প্রাপ্তির প্রয়োজনীয় সময় ও খরচ

সংশ্লিষ্ট আইন

/ বিধি/ নীতিমালা

নির্দিষ্ট সেবা পেতে

ব্যর্থ হলে পরবর্তী

প্রতিকারকারী কর্মকর্তা

০১

মৌলিক, কারিগরি ও পেশাভিত্তিক প্রশিক্ষণ প্রদান

 

১. উপজেলা আনসার ও ভিডিপি কর্মকর্তা

২. উপজেলা প্রশিক্ষক ও প্রশিক্ষিকা

 

আর্থিক বছরের শুরুতে বাৎসরিক প্রশিক্ষণ নির্দেশিকা প্রাপ্তির পর উপজেলা আনসার ভিডিপি কর্মকর্তা, উপজেলা প্রশিক্ষক/প্রশিক্ষিকা ও ইউনিয়ন দলনেতা/দলনেত্রীর সাথে পরামর্শক্রমে প্রাথমিক প্রশিক্ষণার্থী বাছাইপূর্বক জেলা কমান্ড্যান্ট এর নিকট প্রেরণ করেন। জেলা কমান্ড্যান্ট উপজেলা হতে প্রাপ্ত তালিকা যাচাই-বাছাই করে চূড়ান্ত তালিকা প্রণয়ন ও প্রশিক্ষণার্থীদেরকে প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে প্রেরণ করেন। আনসার ও ভিডিপি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে প্রশিক্ষণার্থীদেরকে প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ প্রদান করে সফলভাবে প্রশিক্ষণ সমাপ্তকারীদের মধ্যে সনদপত্র বিতরণ করা হয়।

প্রশিক্ষণের সময় ব্যতীত প্রায় ১৪ দিন

 

(বার্ষিক নির্দেশিকা অনুযায়ী নির্দিষ্টকৃত সময়);

বিনামূল্যে

১। গ্রাম প্রতিরক্ষা দল আইন,১৯৯৫

২। আনসার বাহিনী আইন, ১৯৯৫

৩। আনসার বাহিনী প্রবিধানমালা ১৯৯৬

৪। বাৎসরিক প্রশিক্ষণ নির্দেশিকা

১. জেলা কমান্ড্যান্ট

২. রেঞ্জ পরিচালক

০২

সরকারি-বেসরকারি সংস্থায় সাধারণ আনসার অঙ্গীভূতকরণের মাধ্যমে নিরাপত্তা প্রদান

জেলা কমান্ড্যান্ট ও উপজেলা কর্মকর্তা

 

প্রত্যাশিত সংস্থাকে নিরাপত্তার জন্য আনসার সদস্য চেয়ে নির্ধারিত ফরমে জেলা কমান্ড্যান্ট বরাবর আবেদন করতে হয়। সংস্থার আবেদনের প্রেক্ষিতে জেলা কমান্ড্যান্ট সংশ্লিষ্ট উপজেলা আনসার-ভিডিপি কমর্কর্তাকে সরজমিনে পরিদর্শনপূর্বক প্রতিবেদন দাখিলের নিদের্শ দেন। উক্ত পরিদর্শন প্রতিবেদন প্রাপ্তি সাপেক্ষে জেলা কমান্ড্যান্ট নিজে কিংবা ক্ষেত্র বিশেষে তার উপযুক্ত প্রতিনিধির মাধ্যমে অধিকতর যাচাই করে নিজস্ব মতামতসহ সম্মিলিত পরিদর্শন প্রতিবেদন রেঞ্জ কমান্ডারের নিকট উপস্থাপন করেন। রেঞ্জ কমান্ডার প্রতিবেদনের যৌক্তিকতা ও ক্ষেত্র বিবেচনা করে সন্তোষজনক পেলে মহাপরিচালকের নিকট প্রেরণ করেন। মহাপরিচালক কর্তৃক সন্তোষজনক বিবেচিত হলে অনুমোদন করে জেলা কর্যালয়ে প্রেরণ করেন। অত:পর আবেদনকারীর আবেদন অনুযায়ী প্রয়োজনীয় আনসার সদস্য সরবরাহ করা হয়।

প্রায় ১ মাস;

নিরাপত্তা সেবা প্রাপ্তি নিশ্চিত হলে যতজন আনসার সদস্য নিরাপত্তার জন্য নিয়োজিত হবেন তাদের প্রত্যেকের তিন মাসের বেতন ভাতা এবং প্রত্যেকের প্রতিদিনের ভাতার ১০% আনুষঙ্গিক হিসেবে জেলা কমান্ড্যান্ট এর নিকট চেকের মাধ্যমে অগ্রীম প্রদান করতে হবে

আনসার বিধিমালা-২০০৬

১। রেঞ্জ পরিচালক

২। সদর দপ্তর

০৩

সরকারি-বেসরকারি সংস্থায় অঙ্গীভূতকরণের লক্ষ্যে সাধারণ আনসার প্যানেল প্রস্তুতকরণ ও অফার প্রদান

 

জেলা কমান্ড্যান্ট ও উপজেলা কর্মকর্তা

 

১। আর্থিক বছরের শুরুতে বাৎসরিক প্রশিক্ষণ নির্দেশিকা প্রাপ্তির পর উপজেলা আনসার ভিডিপি কর্মকর্তা উপজেলা প্রশিক্ষক/ প্রশিক্ষিকা ও ইউনিয়ন দলনেতা/দলনেত্রীর সাথে পরামর্শক্রমে প্রাথমিক প্রশিক্ষণার্থী বাছাইপূর্বক জেলা কমান্ড্যান্ট এর অনুমোদন গ্রহণ করেন। জেলা কমান্ড্যান্ট উপজেলা হতে প্রাপ্ত তালিকা যাচাই-বাছাই অন্তে চূড়ান্ত তালিকা প্রনয়ণ ও প্রশিক্ষণার্থীদেরকে প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে প্রেরণ করেন।

২। আনসার ও ভিডিপি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র প্রশিক্ষণার্থীদেরকে প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ প্রদান করবেন ও সফলভাবে প্রশিক্ষণ সমাপ্তকারীদের মধ্যে সনদপত্র বিতরণ করবেন।

বার্ষিক নির্দেশিকা অনুযায়ী;

বিনামূল্যে

আনসার বিধিমালা-২০০৬

১. জেলা কমান্ড্যান্ট

২. পরিচালক, রেঞ্জ

০৪

আনসার ও ভিডিপি সদস্য হিসেবে প্রত্যয়ন পত্র ইস্যু

জেলা কমান্ড্যান্ট

 

প্রত্যয়ন পত্রের জন্য আনসার ভিডিপি সদস্যদের জেলা কমান্ড্যান্টের নিকট আবেদন দাখিল করতে হয়। জেলা কমান্ড্যান্ট প্রাপ্ত আবেদন যাচাইযের জন্য সংশ্লিষ্ট উপজেলা আনসার ও ভিডিপি অফিসারের (ইউএভিডিপিও) নিকট প্রেরণ করেন। ইউএভিডিপিও  প্রাপ্ত আবেদনের সঠিকতা যাচাই করে জেলাতে মতামত/প্রতিবেদন দেন। প্রাপ্ত মতামত/ প্রতিবেদনের ভিত্তিতে জেলা কমান্ড্যান্ট প্রত্যায়ন পত্র প্রদান করেন এবং জেলা থেকে আবেদনকারীগণ তা সংগ্রহ করে থাকেন।

৫-১০ দিন ;

বিনামূল্যে

নাই

রেঞ্জ পরিচালক

০৫

আবেদনের ভিত্তিতে তথ্য প্রদান

সংশ্লিষ্ট দপ্তর প্রধান

 

আবেদনকারীকে তথ্যের বর্ণনা দিয়ে তথ্য অধিকার আইন, ২০০৬ অনুযায়ী নির্ধারিত ফি দিয়ে নির্ধারিত ফরমে আবেদন করতে হয়। আবেদন যাচাই বাছাই করে তথ্য অধিকার আইন অনুযায়ী তথ্য প্রস্তুত করা হয়। পরবর্তীতে নির্ধারিত তারিখে আবেদনকারী তথ্যপত্র সংগ্রহ করেন। আর তথ্য অধিকার আইন অনুযায়ী তথ্য প্রদান সম্ভব না হলে তাও আবেদনকারীকে  অবহিত করা হয়।

২-৩ দিন (তবে তথ্য অধিকার আইন, ২০০৯ অনুযায়ী সর্বোচ্চ ৩০ দিন) ;

বিনামূল্যে

তথ্য অধিকার আইন, ২০০৯

১. জেলা কমান্ড্যান্ট

২. পরিচালক (প্রজেক্ট)

আনসার ও ভিডিপি

৩. সদর দপ্তর

 

০৬

স্বেচ্ছাসেবী সদস্য হিসেবে

প্লাটুনভুক্তিকরণ

উপজেলা আনসার ‍ও

ভিডিপি কর্মকর্তা

 

সেচ্ছাসেবী সাধারণ আনসার সদস্য হিসেবে প্লাটুনভুক্ত হওয়ার জন্য উপজেলা আনসার ও ভিডিপি অফিসারের নিকট যে কেউ আবেদন করতে পারেন। উপজেলা আনসার ও ভিডিপি কর্মকর্তা নিজে অথবা ইউনিয়ন দলনেতা/ দলনেত্রীর মাধ্যমে আবেদন যাচাই/বাছাই করে প্লাটুনভূ্ক্ত করেন এবং আবেদনকারীকে অবহিত করেন। আর প্লাটুনভুক্ত করার উপযুক্ত না হলে বাতিল করেন।

নির্দেশিকা অনুযায়ী;

বিনামূল্যে

আনসার ও ভিডিপি আইন, ১৯৯৫

জেলা কমান্ড্যান্ট

 

০৭

ভাতা ভিত্তিক স্বেচ্ছাসেবী

ইউনিয়ন দলনেতা/দলনেত্রী নিয়োগ

 

 

জেলা কমান্ড্যান্ট

 

ইউনিয়ন দলনেতা/ দলনেত্রীর পদশূন্য হলে সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নের আনসার সদস্যদের মধ্য হতে উক্ত পদ পূরণ করা হয়। এজন্য জেলা কমান্ড্যান্ট বরাবর আবেদন করে উপজেলা আনসার ও ভিডিপি  অফিসে দাখিল করতে হয়। উপজেলা আনসার ভিডিপি অফিসার আবেদনগুলোকে একীভূত করে জেলা অফিসে প্রেরণ করেন। জেলা কমান্ড্যান্ট আবেদনকারীদের ডেকে যাচাই বাছাই করেন। নির্বাচিতদের প্রশিক্ষণের জন্য প্রেরণ করা হয়। যারা প্রশিক্ষণে উত্তীর্ণ হন তাদের ইউনিয়ন দলনেতা/ দলনেত্রী হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়।

 

শূন্যপদের ভিত্তিতে;

বিনামূল্যে

আনসার ও ভিডিপি আইন, ১৯৯৫

রেঞ্জ ও সদর দপ্তর

প্রদেয় সেবাসমূহের তালিকা

ক্রমিক নং

সেবার নাম

সেবার পর্যায়

(সদর দপ্তর, রেঞ্জ, ব্যাটালিয়ন, জেলা, উপজেলা পর্যায়)

১।

মৌলিক, কারিগরি ও পেশাভিত্তিক প্রশিক্ষণ প্রদান

উপজেলা, জেলা, রেঞ্জ, ভিটিসি ও আনসার-ভিডিপি একাডেমি

২।

সরকারি-বেসরকারি সংস্থায় সাধারণ আনসার অঙ্গীভূতকরণের মাধ্যমে নিরাপত্তা প্রদান

জেলা

৩।

সরকারি-বেসরকারি সংস্থায় অঙ্গীভূতকরণের লক্ষ্যে সাধারণ আনসার প্যানেল প্রস্তুতকরণ ও অফার প্রদান

জেলা

৪।

আনসার ও ভিডিপিসদস্য হিসেবে প্রত্যয়ন পত্র ইস্যু

জেলা

৫।

আবেদনের ভিত্তিতে তথ্য প্রদান

উপজেলা, ব্যাটালিয়ন,জেলা, রেঞ্জ, একাডেমি ও সদর দপ্তর

৬।

আবেদনের ভিত্তিতে স্বেচ্ছাসেবী আনসার ও ভিডিপি সদস্য হিসেবে প্লাটুনভুক্তিকরণ

উপজেলা

৭।

আবেদনের ভিত্তিতে স্বেচ্ছাসেবী ইউনিয়ন দলনেতা-দলনেত্রী নিয়োগ

জেলা

সিটিজেন চার্টার

সিটিজেন চার্টার:

প্রশিক্ষণের নিয়মাবলীঃ

ক) মৌলিক প্রশিক্ষণঃসাধারন আনসার মৌলিক প্রশিক্ষণ জেলা প্রশিক্ষণ কেন্দ্র ও আনসার ভিডিপি একাডেমীতে এবং ভিডিপি মৌলিক প্রশিক্ষণ জেলা প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত হয়। প্রশিক্ষণের যোগ্যতা নিম্নরূপ-

(১)    বয়স                   ঃ      ১৮~২৫ বছর

(২)   উচ্চতা                 ঃ      ৫'-৪" (পূরুষ) ৫'-০" (মহিলা)

(৩) ওজন                    ঃ      নূনতম ১১০ পাউন্ড

(৪) বুকের মাপ              ঃ      ৩১"~৩৩" (পুরুষ)

(৫) দৃষ্টিশক্তি                 ঃ      ৬/৬

(৬) শিক্ষাগত যোগ্যতা   ঃ     ৮ম শ্রেনী

(৭) জেলার স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে।

(৮) শারীরিক এবং মানসিক ভাবে সুস্থ্য হতে হবে।

(9) ভিডিপি মৌলিক প্রশিক্ষণ এবং ভোটার আইডি কার্ড থাকতে হবে।

 

প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত আনসার ও ভিডিপির সদস্য/সদস্যা সরকারী চাকুরীর ক্ষেত্রে তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারীর নিয়োগের সময় ১০% কোটার সুবিধা পবেন।

 

খ) কারিগরি/পেশা ভিত্তিক প্রশিক্ষণঃকারিগরি/পেশা ভিত্তিক প্রশিক্ষণের জন্য আনসার অথবা ভিডিপি মৌলিক প্রশিক্ষণ থাকতে হবে। এই প্রশিক্ষণ গুলো জেলা প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, রেঞ্জ কার্যালয় কুমিল্লা, রেঞ্জ কার্যালয় সিলেট, টিটিসি গাজীপুর, টিটিসি কলাকোপা এবং আনসার ভিডিপি একাডেমী সফিপুর গাজীপুর অনুষ্ঠিত হয়। শিক্ষাগত যোগ্যতা কোন কোন ক্ষেত্রে ৮ম শ্রেনী কোন কোন ক্ষেত্রে এসএসসি পাশ প্রয়োজন হয়। প্রশিক্ষণ গুলো হল -

 

(১)    ওয়েল্ডিং ১জি টু ৩জি প্রশিক্ষণ

(২)    পাইপ ফিটিং ও প­াম্বিং প্রশিক্ষণ

(৩)    ইলেট্রিক্যাল হাউজ ওয়ারিং প্রশিক্ষণ

(৪)     রেফ্রিজারেশণ এন্ড এসি প্রশিক্ষণ

(৫)     মোবাইল ফোন রিপিয়ার এন্ড সার্ভিসিং প্রশিক্ষণ

(৬)     অটোমোবাইল ম্যাকানিক্স প্রশিক্ষণ

(৭)      অটোমোবাইল ইলেট্রিশিয়ান প্রশিক্ষণ

(৮)     সাটারিং কার্পেন্ট্রি প্রশিক্ষণ

(৯)      রড বাইন্ডিং /স্টিল ফিক্সিং/বিল্ডিং পেইন্টিং প্রশিক্ষণ

(১০)     ইলেট্রিশিয়ান/ফ্রিজ ও এয়ারকন্ডিশনার মেরামত প্রশিক্ষণ

(১১)     সেলাই ও ফ্যাশন ডিজাইন /সোয়োটার নিটিং প্রশিক্ষণ

(১২)     মটর ড্রাইভিং প্রশিক্ষণ/গার্মেন্টস প্রশিক্ষণ

(১৩)    হস্ত শিল্প  (কাঠ মাটি,উল ও পাট/বাঁশ ও বেত)প্রশিক্ষণ

(১৪)     বেসিক কম্পিউটার প্রশিক্ষণ

 

                      ৫.২     আনসার অঙ্গভূতি/নিয়োগ প্রক্রি্য়াঃযোগ্যতা সম্পন্ন যে কোন প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত পিসি/এপিসি/আনসার অঙ্গীভূত হয়ে কাজ করতে পারে।অঙ্গীভূত হওয়ার জন্য সদর দপ্তর কর্তৃক নির্ধারিত তারিখে প্যানেল কমিটির মাধ্যমে প্যানেলভূক্ত হতে হয়। প্যানেলভূক্ত হওয়ার যোগ্যতা নিম্নরূপঃ

       ক) পিসি/এপিসি/আনসার প্রশিক্ষণ থাকতে হবে।

       খ)    বয়স                            :১৮--৫০ বছর       

       গ)    উচ্চতা                : ৫র্-৪র্ (পূরুষ) ৫র্-০র্ (মহিলা)

       ঘ)   ওজন                       :  নূনতম ১১০ পাউন্ড

       ঙ)     বুকের মাপ              : ৩১র্---৩৩র্ (পুরুষ)

       চ)  দৃষ্টিশক্তি                    :  ৬/৬

       ছ)  শিক্ষাগত যোগ্যতা          :  ৮ম শ্রেনী

       জ) জেলার স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে।

       ঝ) শারিরীক এবং মানষিক ভাবে সুস্থ্য হতে হবে।

 

প্যানেল ভূক্ত হওয়ার সময় প্রশিক্ষণ সনদ, শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদ, নাগরিকত্ব সনদ, জাতীয় পরিচয় পত্র, জন্ম নিবন্ধন সনদ, রক্তের গ্রুপ, ডাক্তারী সনদ, পুলিশ ভেরিফিকেশন রিপোট, দুইকপি পাসপোট সাইজ ও দুইকপি ষ্টাম্প সাইজের সত্যায়িত ছবি এবং সকল কাগজ পত্রের সত্যায়িত কপি জমা দিতে হবে।

প্যানেল তালিকা সদর দপ্তরে প্রেরন করার পর যাচাই বাছাই করে সদর দপ্তর থেকে অনুমোদিত তালিকা জেলা কার্যালয়ে প্রেরন করা হয় এবং উক্ত তালিকা থেকে বিভিন্ন প্রত্যাশী সংস্থায় আনসার মোতায়েন করা হয়।

অঙ্গীভূত অবস্থায় একজন আনসার নিম্নোক্ত সুবিধা প্রাপ্ত হয়-

ক) বেতন ভাতা হিসাবে একজন আনসার দৈনিক ২৩৪ টাকা এবং একজন

পিসি/এপিসি ২৫০/৩৯ টাকা পায়।

১) বছরে দুইটি উৎসব ভাতা পায়।

২) ভর্তুকি মূল্যে একজন আনসার মাসে ২৮ কেজি চাউল ২৮ কেজি গম এবং ২ লিটার তেল পায়।

৩) সরকারী ভাবে ইউনির্ফম পায়।

৪) দায়িত্ব পালন কালিন সময়ে কোন দূর্ঘটনায় পতিত হলে বিভাগীয় কল্যান তহবিল হতে চিকিৎসার জন্য আর্থিক সহায়তা পায়।

৫) কন্যার বিবাহ ও মেধাবী সন্তানের শিক্ষার জন্য  বিভাগীয় কল্যান তহবিল থেকে আর্থিক সহায়তা পায়।

৬) কৃতিত্বপূর্ণ কাজের জন্য পুরস্কার ও অর্থিক সহায়তা পায়।

 

5.3 প্রত্যাশি সংস্থায় আনসার মোতায়েনঃ  কোন সংস্থা তাদের নিরপত্তার জন্য আনসার       

                     মোতায়েন করতে চইলে নিম্নোক্ত প্রক্রিয়া সম্পূন্ন করতে হয়ঃ

১) জেলা কার্যালয় থেকে নির্ধারিত আবদেন ফরম সংগ্রহ করে প্রয়োজনী তথ্য যথা আনসারদের আবাসন, বিদ্যুৎ, ফ্যান, পানি, রান্নার ব্যবস্থা, চারপায়া, অস্ত্রাগার, ইত্যাদি আছে কি না সে সকল তথ্য পূরন করে আনসারের সংখ্যা উল্লেখ পূর্বক জেলা কার্যালয়ে জমা দিতে হয়। আবেদন ফর্মের সাথে ৫০ টাকার ষ্টাম্পে একটা অঙ্গীকার নামা সংযোজন করতে হয়।

২)সংশ্লিষ্ট উপজেলার আনসার  ও ভিডিপি কর্মকর্তা কর্তৃক পরিদর্শন প্রতিবেদনে আনসারদের প্রয়োজনীয় সুবিধাদি বিদ্যমান থাকলে এবং আনসার মোতায়েনের ব্যাপারে মতামত দিলে মতামতসহ আবেদন আনসার ভিডিপি সদর দপ্তরে প্রেরন করা হয়।

৩)প্রত্যাশি সংস্থা কর্তৃক আনসারদের তিন মাসের বেতন ভাতাদি জেলা কার্যালয়ে চেক/ড্রাফট এর মাধ্যমে অগ্রীম জেলা কার্যালয়ে জমা দিতে হয়। 

৪)সদর দপ্তর থেকে অনুমোদন পাওয়ার পর প্রত্যাশি সংস্থায় আনসার মোতায়ন করা হয়।

তথ্য অধিকার

বিজ্ঞপ্তি

ডাউনলোড

আইন ও সার্কুলার